মাইন্ড এন্ড ব্রেইন
Now Reading
জোরে কথা বললে ‘নীরব’ হয়ে যায় মস্তিষ্কের কিছু অংশ

জোরে কথা বললে ‘নীরব’ হয়ে যায় মস্তিষ্কের কিছু অংশ

মস্তিষ্কের যে অংশটি মানুষের কথাবার্তা নিয়ন্ত্রণ করে, জোরে জোরে কথা বলার সময় নিষ্ক্রিয় থাকে সেই অংশটি। নতুন এক গবেষণায় উঠে এসেছে এই তত্ত্ব।

এতদিন পর্যন্ত জানা ছিল মস্তিষ্কের ব্রোকাস অঞ্চলটি ভোকালাইগেশন সহ মানুষের কথাবার্তা সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। এবার ১৫০ বছরের পুরনো এই ধারণার বিরুদ্ধে কার্যত চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দলেন মেরিল্যান্ডের জন হপকিন্স ও ক্যালিফোরনিয়ার বার্কলে বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। তাঁরা জানিয়েছেন জোরে জোরে কথা বলার সময় ব্রোকাস অঞ্চলটি কাজই করে না।

এই গবেষণাপত্রের অন্যতম লেখক এডিন ফ্লিঙ্কার জানিয়েছেন ”বক্তৃতা দেওয়ার সময় ব্রোকাস অঞ্চলটি কাজ করা বন্ধ করে দেয়। আবার আস্তে আস্তে কথা বলা ও একটি সম্পূর্ণ বাক্য বলার সময় এটি সক্রিয় থাকে।”

স্নায়ুবিজ্ঞানীরা মস্তিষ্কের ভাষা নিয়ন্ত্রক সেন্টারকে দু’ভাগে ভাগ করেছেন। একটি অঞ্চল বক্তব্য বোঝার জন্য ও অন্য একটি অঞ্চল বক্তব্য পেশ করাকে নিয়ন্ত্রণ করে।

”এই আবিষ্কারের ফলে স্পষ্ট যে ব্রোকাস অঞ্চল মোটেও বক্তব্য তৈরিকে নিয়ন্ত্রণ করে না। এই অঞ্চলটি মূলত মস্তিষ্কের বিভিন্ন অংশের তথ্যের মধ্যে সমন্বয় সাধন করে।” জানিয়েছেন ফ্লিঙ্কার।

স্ট্রোক, মস্তিষ্কে আঘাত বা মৃগীর ফলে কথা বলায় যে সমস্যা তৈরি হয়, এই আবিষ্কার তা সমাধানে অনেকাংশে সাহায্য করবে বলে আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

নিচের বাটনগুলোর সাহায্যে খবরটি শেয়ার করুন