Please log in or register to like posts.
খবর

টানা ১০০ দিন ধরে অপরচুনিটির কোনও সাড়াশব্দ পায়নি নাসা। তার ফলে, অপরচুনিটিকে নিয়ে সন্দেহ, সংশয় উত্তরোত্তর জোরালো হচ্ছে। ‘লাল গ্রহ’ মঙ্গলের বুকে কি প্রাণের স্পন্দন থেমে গিয়েছে নাসার পাঠানো রোভার মহাকাশযান ‘অপরচুনিটি’র?

মঙ্গলের বুকে তুমুল ধুলোঝড় উঠেছিল এই জুলাইয়ে। তা চলেছিল অনেক দিন ধরে। অপরচুনিটি তখন মঙ্গলে অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছিল। নামছিল মঙ্গলের পারসিভেরেন্স ভ্যালি ধরে। ওই ভয়ঙ্কর ধুলোঝড়ের সময় থেকেই পাসাডেনায় নাসার জেট প্রোপালসন ল্যাবরেটরি (জেপিএল)-র বিজ্ঞানীরা আর কোনও সাড়াশব্দ পাননি রোভার অপরচুনিটির।

মঙ্গলের পারসিভেরেন্স ভ্যালিতে ‘অপরচুনিটি’র এই ছবি তুলেছে নাসার মহাকাশযান। গত ২০ সেপ্টেম্বর।

নাসার তরফে বুধবার জানানো হয়েছে, কোনও সাড়াশব্দ না মেলায় অপরচুনিটি ‘জীবিত’ না ‘মৃত’, এখনও পর্যন্ত তা বোঝা যাচ্ছে না বটে, তবে টানা ১০০ দিন পর এই প্রথম রোভারটিকে দেখা গিয়েছে মঙ্গলের বুকে ওই পারসিভেরেন্স ভ্যালিতেই। তার হালহদিশ মিলেছে, এইটুকুই শুধু বলা যায়। অপরচুনিটির ওই ছবিটি তুলেছে নাসার পাঠানো মহাকাশযান ‘এমআরও’-র ‘হাইরাইজ’ ক্যামেরা। গত ২০ সেপ্টেম্বর। ছবিতে যে এলাকাটিকে সাদা চতুর্ভূজ দিয়ে ঘিরে রাখা আছে, অপরচুনিটি এখন রয়েছে সেখানেই। এলাকাটি ৪৭ মিটার বা ১৫৪ ফুট চওড়া। ছবিটি মঙ্গলের পিঠ থেকে ২৬৭ কিলোমিটার বা ১৬৬ মাইল ওপর থেকে তোলা হয়েছে।

সম্পাদক নির্বাচিত

Leave a Reply